বৃষ্টির ঠিকানা – মুহম্মদ জাফর ইকবাল

বৃষ্টির ঠিকানা – মুহম্মদ জাফর ইকবাল

Your rating: 7
8.8 4 votes

বৃষ্টির ঠিকানা pdf বাংলা বই। বৃষ্টির ঠিকানা – মুহম্মদ জাফর ইকবাল এর লেখা একটি বাংলা কিশোর সাহিত্য এর বই।  তার “বৃষ্টির ঠিকানা ” বইয়ের একটি পিডিএফ (pdf) ফাইল ই বুক (eBook) আমরা অনলাইনে খুজে পেয়েছি এবং মুহম্মদ জাফর ইকবাল (Muhammed Zafar Iqbal) এর অসাধারণ বইটি আপনাদের মাঝে শেয়ার করছি। আপনারা যেকোন সময় বইটি আমাদের ওয়েব সাইট থেকে ডাউনলোড করে এবং অনলাইনে পড়তে পারবেন।  ১৪৭ পাতার বৃষ্টির ঠিকানা বাংলা বইটি (Bangla Boi) একটি অধিক পঠিত গল্প যা ২০০৭ সালে সময় প্রকাশন প্রথম প্রকাশ করে।

বইয়ের বিবরণ

  • বইয়ের নামঃ বৃষ্টির ঠিকানা
  • লেখকঃ মুহম্মদ জাফর ইকবাল
  • প্রকাশিতঃ মে ২০০৭ 
  • প্রকাশকঃ সময় প্রকাশন 
  • সাইজঃ ১৪ এমবি
  • ভাষাঃ বাংলা (Bangla/Bengali)
  • পাতা সংখ্যাঃ ১৪৭ টি
  • বইয়ের ধরণঃ কিশোর সাহিত্য
  • ফরম্যাটঃ পিডিএফ (PDF)

মুহম্মদ জাফর ইকবাল এর বৃষ্টির ঠিকানা বাংলা বইটি সম্পুর্ণ ফ্রীতে ডাউনলোড এবং পড়তে পারবেন। আমরা মুহম্মদ জাফর ইকবালের  বৃষ্টির ঠিকানা বই এর পিডিএফ কপি সংগ্রহ করেছি এবং আপনাদের মাঝে তা শেয়ার করছি। মুহম্মদ জাফর ইকবালের অন্যান্য গল্প, উপন্যাস, কাব্যগ্রন্থ, কবিতার বই সমূহ পড়তে আমাদের সাইটে চোখ রখুন। নিচের লিংক থেকে ১৪ এমবির বইটি ডাউনলোড করে কিংবা অনলাইনে যেকোন সময় মুহম্মদ জাফর ইকবাল এর এই জনপ্রিয় কিশোর সাহিত্য এর বইটি পড়ে নিতে পারবেন।যখন খুব মন খারাপ হয় সে বসে বসে ছবি আঁকে। টুম্পা মেয়েটা। বয়স তেরো। আমেরিকায় থাকে। একটা ছবি আঁকার প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে বি ক্যাটাগরিতে দ্বিতীয় হলো সে। প্রাইজ দেড় হাজার ডলার। ড্যানিয়েল জিজ্ঞেস করল, “ঠোম্পা! তুমি কী করবে দেড় হাজার ডলার দিয়ে?” “ বাংলাদেশে যাবার জন্য প্লেনের টিকেট কিনব!” কথাটা বলার আগেও মুহূর্তেও টুম্পা জানতো না সে এই কথাটা বলবে। বলে ফেলার পর সে বুঝতে পারলো, অবশ্যই সে এই কথাটিই বলবে! তা না হলে কী বলবে সে? বাংলাদেশ! বাংলাদেশে নাকি খুব সুন্দর বৃষ্টি হয়। পৃথিবীর মাঝে সবচেয়ে সুন্দর…..

ডাউনলোড  /  অনলাইনে পড়ুন

টুম্পা । সে ছবি আঁকতে ভালবাসে । অসম্ভব সুন্দর ছবি আঁকে ।তেরো বছরের একটা ছোট্ট মেয়ে । মায়ের সাথে সৎ বাবার সে আমেরিকায় থাকে । টুম্পার নতুন বাবা । মানুষটা টুম্পাকে পছন্দ করতেন না মোটেও। তেরো বছর বয়সী এই কিশোরীর জীবনটাকে তিনি সিমাবদ্ধঙ্করে রাখেন মেয়েটির স্কুল আর বাসার মাঝে । ছবি আঁকা নিয়ে ব্যাস্ত থেকে সে তার কষ্টগুলোকে নিজে থেকে দূরে সরিয়ে দিত । কিন্তু নতুন বাবার এই ছবি আকা নিয়েও ছিল অভিযোগ । প্রায়ই টুম্পাকে তার নতুন বাবা থেকে একটা কথা শুনতে হতো, টুম্পাও তার বাবার মতই পাগল, তার আসল বাবার মত । কিন্তু তার মনটা যেন সবসময় পড়ে থাকে বাংলাদেশে । সে ইন্টারনেটে বাংলাদেশ নিয়ে অনেক কিছু পড়ে , চেষ্টা করে অনেক কিছু জানার । একটা আর্ট কম্পিটিশনে বি ক্যাটাগরিতে সেকেন্ড হয়ে প্রাইজ পেল দেড় হাজার ডলার। ড্যানিয়েল জিজ্ঞেস করল, “ঠোম্পা! তুমি কী করবে দেড় হাজার ডলার দিয়ে?” “ বাংলাদেশে যাবার জন্য প্লেনের টিকেট কিনব!” বাংলাদেশের বৃষ্টিতে তার ভেজার শখ । কিন্তু তার বাবা মা কিছুতেই তাকে বাংলাদেশে পাঠাবে না । শেষ পর্যন্ত টুম্পা তার বাবা মাকে রাজি করাতে পারে ।পাড়ি জমায় তার মাতৃভূমির উদ্দেস্যে । চলে আসে সবুজের দেশ, বৃষ্টির দেশ বাংলাদেশে। বাংলাদেশে সে তার হারিয়ে যাওয়া বাবাকে খুঁজতে এসেছে । বুলবুল রায়হান । নামকরা একজন চিত্রশিল্পী । পাগল বলে টুম্পার মা টুম্পাকে নিয়ে বহুদিন আগেই সব ছেড়েছুড়ে আমেরিকা চলে গেছেন । তার হারিয়ে যাওয়া বাবাকে খুঁজে বের করে টুম্পা । টুম্পা তার আপন বাবা সম্পর্কে ভয়ানক সত্য কথা জানে । তার বাবা স্কিৎজোফ্রেনিয়া রোগী । এটা এমন একটা রোগ যেখানে রোগী অবাস্তব একটা জিনিষ নিয়ে ভয় পায় । যে জিনিষটা নিয়ে ভয় পায় সেটা অবাস্তব হতে পারে কিন্তু ভয়টা পুরোপুরি বাস্তব । একটি প্রায় অন্ধকার ঘরে নিজেকে আটকে রাখে টুম্পার বাবা । সবাইকে সন্দেহ করে । টুম্পা তার বাবাকে বোঝাতে চেষ্টা করে যে এটা তার ভয়ংকর একটা অসুখ তাকে এই অসুখ নিয়েই বাঁচা শিখতে হবে ।তার বাবা কে সে আবার আগের মত করে স্বাভাবিকভাবে বাঁচতে শেখায় । সবাই যে মানুষটাকে মৃত বলে জানত সেই মানুষটা তার তেরো বছরের মায়াবতি মেয়েটার হাত ধরে নতুন ভাবে বাঁচতে শুরু করে্ন, আবার আগের মতই হয়ে ওঠেন বিখ্যাত শিল্পী বুলবুল রায়হান

আশা করছি, মুহম্মদ জাফর ইকবাল এর  বৃষ্টির ঠিকানা বইটি পড়ে আপনাদের ভালো লাগবে । মুহম্মদ জাফর ইকবাল (Muhammed Zafar Iqbal) এর অন্যান্য বাংলা বই ডাউনলোড করতে আমাদের সাইট ভিজিট করুন আর বৃষ্টির ঠিকানা বইটি আপনাদের কেমন লাগলো তা জানতে ভুলবেন না।

Similar titles

অন্ধকারের একশ বছর – আনিসুল হক
প্রেত – মুহম্মদ জাফর ইকবাল
নিষ্কৃতি – শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়
নগ্ন ঈশ্বর – অতীন বন্দ্যোপাধ্যায়
নাগিনী কন্যার কাহিনী – তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
মানুষের প্রথম অ্যাডভেঞ্চার – হেমেন্দ্রকুমার রায়
এক মেয়ে ব্যোমকেশের কাহিনী – শিবরাম চক্রবর্তী
রাজনীতিবিদগণ – হুমায়ুন আজাদ
বিশাখা – সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়
২০৩০ সালের একদিন ও অন্যান্য – মুহম্মদ জাফর ইকবাল
মোগলসরাই জংশন – নিমাই ভট্টাচার্য
হিমুর হাতে কয়েকটি নীলপদ্ম – হুমায়ূন আহমেদ

Leave a comment

Name *
Add a display name
Email *
Your email address will not be published
Website