তারিণীখুড়োর কীর্তিকলাপ – সত্যজিৎ রায়

তারিণীখুড়োর কীর্তিকলাপ – সত্যজিৎ রায়

Your rating: 10
10 1 vote

তারিণীখুড়োর কীর্তিকলাপ pdf বাংলা বই। তারিণীখুড়োর কীর্তিকলাপ – সত্যজিৎ রায় এর লেখা একটি বাংলা রহস্য, গোয়েন্দা, অ্যাডভেঞ্চার গল্পের বই। তার “তারিণীখুড়োর কীর্তিকলাপ” বইয়ের একটি পিডিএফ (pdf) ফাইল ই বুক (eBook) আমরা অনলাইনে খুজে পেয়েছি এবং সত্যজিৎ রায় (Satyajit Ray) এর অসাধারণ বইটি আপনাদের মাঝে শেয়ার করছি। তারিণীখুড়ো গল্প বলেন। শ্রোতা পাঁচজন। চাকুরীর কল্যাণে ভদ্রলোক সারা ভারতবর্ষ ঘুরে বেড়িয়েছেন। তাঁর অভিজ্ঞতাও হয়েছে বিচিত্ররকম। গল্পের স্টক খুড়োর অঢেল। বিচিত্র সেই গল্পগুলি। তারিণীখুড়োর মতো আটের খাতিরে যেটুকু কল্পনার আশ্রয় নিতে হয় সেটুকু ছাড়া আর নাকি সবই সত্যি। অবশ্য এই আর্টের খাতিরে কল্পনার আশ্রয় নেবার কথাই বা কে স্বীকার করে। ঘনাদা করেননি, টেনিদাও করেননি। বইটি ছোট ছোট কিছু গল্পে সাজানো, মাঝে মাঝে আবার ছবিও আছে। রহস্য, ভূত-প্রেত, হাস্যরস সবই আছে তারিণীখুড়োর গল্পে। আপনারা যেকোন সময় বইটি আমাদের ওয়েব সাইট থেকে ডাউনলোড করে এবং অনলাইনে পড়তে পারবেন। ১৩৭ পাতার তারিণীখুড়োর কীর্তিকলাপ বাংলা বইটি (Bangla Boi) একটি অধিক পঠিত রহস্য, গোয়েন্দা, অ্যাডভেঞ্চার গল্প যা ২০০১ সালে নওরোজ সাহিত্য সম্ভার প্রথম প্রকাশ করে।

সত্যজিৎ রায়ের তারিণীখুড়ো সিরিজের চৌদ্দটি গল্প এই বইয়ে সন্নিবেশিত হয়েছে।

১. মহারাজা তারিণীখুড়ো
২. তারিণীখুড়ো ও ঐন্দ্রজালিক
৩. নরিস সাহেবের বাংলো
৪. গণৎকার তারিণীখুড়ো
৫. গল্প বলিয়ে তারিণীখুড়ো
৬. ডুমনিগড়ের মানুষখেকো
৭. কনওয়ে কাস্‌লের প্রেতাত্মা
৮. শেঠ গঙ্গারামের ধনদৌলত
৯. লখ্‌নৌর ডুয়েল
১০. ধুমলগড়ের হাণ্টিং লজ
১১. খেলোয়াড় তারিণীখুড়ো
১২. টলিউডে তারিণীখুড়ো
১৩. তারিণীখুড়ো ও বেতাল
১৪. মহিম সান্যালের ঘটনা

বইয়ের বিবরণ

  • বইয়ের নামঃ তারিণীখুড়োর কীর্তিকলাপ 
  • লেখকঃ সত্যজিৎ রায়
  • প্রকাশিতঃ ২০০১ 
  • প্রকাশকঃ নওরোজ সাহিত্য সম্ভার
  • সাইজঃ ০৮ এমবি
  • ভাষাঃ বাংলা (Bangla/Bengali)
  • পাতা সংখ্যাঃ ১৩৭ টি
  • বইয়ের ধরণঃ গল্প
  • ফরম্যাটঃ পিডিএফ (PDF)

সত্যজিৎ রায় এর তারিণীখুড়োর কীর্তিকলাপ বাংলা বইটি সম্পুর্ণ ফ্রীতে ডাউনলোড এবং পড়তে পারবেন। আমরা সত্যজিৎ রায় এর তারিণীখুড়োর কীর্তিকলাপ বই এর পিডিএফ কপি সংগ্রহ করেছি এবং আপনাদের মাঝে তা শেয়ার করছি। সত্যজিৎ রায় ছিলেন একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র নির্মাতা ও বিংশ শতাব্দীর অন্যতম শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পরিচালক। চলচ্চিত্র নির্মাতা হিসেবে সত্যজিৎ ছিলেন বহুমুখী এবং তাঁর কাজের পরিমাণ বিপুল। তিনি ৩৭টি পূর্ণদৈর্ঘ্য কাহিনীচিত্র, প্রামাণ্যচিত্র ও স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন। চলচ্চিত্র নির্মাণের বাইরে তিনি ছিলেন একাধারে কল্পকাহিনী লেখক, প্রকাশক, চিত্রকর, গ্রাফিক নকশাবিদ ও চলচ্চিত্র সমালোচক। সত্যজিৎ বাংলা সাহিত্যের সবচেয়ে জনপ্রিয় দুটি চরিত্রের স্রষ্টা। একটি হল প্রাতিজনিক গোয়েন্দা ফেলুদা, অন্যটি বিজ্ঞানী প্রফেসর শঙ্কু। এছাড়া তিনি প্রচুর ছোটগল্প লিখেছেন যেগুলো বারটির সংকলনে প্রকাশ পেত এবং সংকলনগুলোর শিরোনামে “বার” শব্দটি বিভিন্নভাবে ব্যবহৃত হত। সত্যজিৎ রায় তাঁর জীবদ্দশায় প্রচুর পুরস্কার পেয়েছেন। তিনিই দ্বিতীয় চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব যাঁকে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় সাম্মানিক ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করে। প্রথম চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব হিসেবে অক্সফোর্ডের ডিলিট পেয়েছিলেন চার্লি চ্যাপলিন।পথের পাঁচালি, অপরাজিত ও অপুর সংসার – এই তিনটি চলচ্চিত্রকে একত্রে অপু ত্রয়ী বলা হয়, এবং এই চলচ্চিত্র-ত্রয়ী তাঁর জীবনের শ্রেষ্ঠ কাজ বা ম্যাগনাম ওপাস হিসেবে বহুল স্বীকৃত।

নিচের লিংক থেকে ০৮ এমবির বইটি ডাউনলোড করে কিংবা অনলাইনে যেকোন সময় সত্যজিৎ রায় এর এই জনপ্রিয় রহস্য, গোয়েন্দা, অ্যাডভেঞ্চার সমগ্র বইটি পড়ে নিতে পারবেন।

ডাউনলোড  /  অনলাইনে পড়ুন

সত্যজিৎ রায় একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র নির্মাতা ও বিংশ শতাব্দীর অন্যতম শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পরিচালক। কলকাতা শহরে সাহিত্য ও শিল্পের জগতে খ্যাতনামা এক বাঙালি পরিবারে ২ মে, ১৯২১ তাঁর জন্ম হয়। তাঁর পূর্বপুরুষের ভিটা ছিল বাংলাদেশের কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদী উপজেলার মসূয়া গ্রামে। তিনি কলকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজ ও শান্তিনিকেতনে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর প্রতিষ্ঠিত বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। সত্যজিতের কর্মজীবন একজন বাণিজ্যিক চিত্রকর হিসেবে শুরু হলেও প্রথমে কলকাতায় ফরাসি চলচ্চিত্র নির্মাতা জঁ রনোয়ারের সাথে সাক্ষাৎ ও পরে লন্ডন শহরে সফররত অবস্থায় ইতালীয় নব্য বাস্তবতাবাদী ছবি লাদ্রি দি বিচিক্লেত্তে দেখার পর তিনি চলচ্চিত্র নির্মাণে উদ্বুদ্ধ হন। তাঁর নির্মিত প্রথম চলচ্চিত্র পথের পাঁচালী ১১টি আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ করে, যাদের মধ্যে অন্যতম ছিল কান চলচ্চিত্র উৎসবে পাওয়া “শ্রেষ্ঠ মানব দলিল” পুরস্কারটি।পথের পাঁচালী, অপরাজিত ও অপুর সংসার – এই তিনটি চলচ্চিত্রকে একত্রে অপু ত্রয়ী বলা হয়, এবং এই চলচ্চিত্র-ত্রয়ী তাঁর জীবনের শ্রেষ্ঠ কর্ম হিসেবে বহুল স্বীকৃত। চলচ্চিত্র নির্মাণের বাইরে তিনি ছিলেন একাধারে কল্পকাহিনী লেখক, প্রকাশক, চিত্রকর, গ্রাফিক নকশাবিদ ও চলচ্চিত্র সমালোচক। বর্ণময় কর্মজীবনে তিনি বহু পুরস্কার পেয়েছেন। তবে এগুলির মধ্যে সবচেয়ে বিখ্যাত হল ১৯৯২ সালে পাওয়া একাডেমি সম্মানসূচক পুরস্কারটি (অস্কার), যা তিনি সমগ্র কর্মজীবনের স্বীকৃতি হিসেবে অর্জন করেন।

আশা করছি, সত্যজিৎ রায় এর তারিণীখুড়োর কীর্তিকলাপ বইটি পড়ে আপনাদের ভালো লাগবে। সত্যজিৎ রায় (Satyajit Ray) এর অন্যান্য বাংলা বই ডাউনলোড করতে আমাদের সাইট ভিজিট করুন আর তারিণীখুড়োর কীর্তিকলাপ বইটি আপনাদের কেমন লাগলো তা জানতে ভুলবেন না।

Similar titles

শান্তা পরিবার – মুহম্মদ জাফর ইকবাল
দেনাপাওনা – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
যাদুকরী – তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
শেষের রাত্রি – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
মাস্টারমশায় – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
কাকাবাবু ও ব্ল্যাক প্যান্থার – সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়
ঝুরি কুড়ি গল্প – শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়
জাহাঙ্গীরের স্বর্ণমুদ্রা – সত্যজিৎ রায়
গোঁসাইপুর সরগরম – সত্যজিৎ রায়
আগুনের পরশমণি – হুমায়ূন আহমেদ
রস কষ শিঙাড়া বুলবুলি মস্তক – হুমায়ূন আহমেদ
মানবী – হুমায়ূন আহমেদ

Leave a comment

Name *
Add a display name
Email *
Your email address will not be published
Website